জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি Jonmo Nibondhon Online Copy

আপনি কি আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে চান ? তাহলে আপনি ঠিক জায়গায় এসছেন। এই পোস্টটি আপনার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ ও কার্যকারী। আপনি এই পোস্টটির মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি পিডিএফ ডাউনলোড করার নিয়ম জানতে পাবেন। এছাড়াও আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইন রেজিষ্ট্রেশন আছে কি না তা জানতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ প্রত্যেকটি মানুষের একটি প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট এবং বিভিন্ন কাজে এ ডকুমেন্ট কাজে লাগে। সে জন্য আমরা আজকে জন্ম নিবন্ধন সনদ পিডিএফ ডাউনলোড করার পদ্ধতি সম্পর্কে তথ্য ছাড়াও জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি (Jonmo Nibondhon Online Copy Download) করার তথ্য জানবো [adhere]

জন্ম সনদের ফরম ডাউনলোড লিংক

কীভাবে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি(Jonmo Nibondhon Online Copy) পিডিএফ ফাইল আকারে ডাউনলোড করা যায়।তার পূর্বে আমরা জেনে নেই আসলে জন্ম সনদ কি? জন্ম সনদ বলতে একজন ব্যক্তির ব্যক্তিগত তথ্য স্থানীয় সরকার বা প্রশাসন দ্বারা রেজিস্টার কৃত তথ্য। অর্থাৎ আপনি আপনার যে এলাকায় বসবাস করেন সেই এলাকায় আপনার স্থানীয় সরকার প্রশাসন দিয়ে আপনার সকল তথ্য যাচাই করে।এবং তার ওপর অনুমোদন প্রদান করা হয়।জন্ম নিবন্ধন সনদ আপনার ব্যক্তিগত তথ্য।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম

আপনার ব্যক্তিগত নাম আপনার পিতার নাম, আপনার মাতার নাম, আপনার জন্ম তারিখ, আপনার স্থায়ী ঠিকানা, আপনার জাতীয়তা ইত্যাদি।একটি কাগজে যখন এই সকল তথ্য দেওয়া হবে তখন ডাটা এন্ট্রি করে সকল তথ্য নিয়ে তাদের সরকারি ওয়েবসাইটে লিপিবদ্ধ করবে।এবং আপনার সকল তথ্যের সত্যতা যাচাই করে স্থানীয়  সরকার তা  অনুমোদন করবে।

নিবন্ধন সনদ আমাদের দৈনিক জীবনে কি কি কাজে লাগে?

প্রকৃতপক্ষে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি/ সনদ আমাদের জীবনে অনেক কাজে লাগে। একজন মানুষ যখন 18 বছর পূর্ণ হয় এবং এন আই ডি/ জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্য আবেদন করে তখন থেকে সেই ব্যাক্তি বাংলাদেশের নাগরিক। কিন্তু জন্মের পর থেকে 18 বছরের পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত একজন ব্যক্তির পরিচয় পত্র হলো জন্ম নিবন্ধন সনদ। তাই বিভিন্ন ব্যক্তিগত এবং প্রাতিষ্ঠানিক কাজের জন্য আমাদের এই জন্ম নিবন্ধন সনদ কাজে লাগে।যেমন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি বা কোন সরকারী সুবিধা গ্রহণ করতে ।বাইরের কোন জেলায় আমাদের কোন কাজে অংশগ্রহণ করতে হলে জন্ম নিবন্ধন সনদ দেখাতে হবে।[adhere]

আরও জানতে পারেন ।

  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড
  •  ঘরে বসে আপনার নিজের বা শিশুর জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি করতে ডাউনলোড ও আবেদন করতে পারবেন।
  •  জন্মসনদে টিকার সুযোগ।

দেখে নিন জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি চেক।

অনলাইনে নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন চেক করা যায় না।(জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ) কর্তৃপক্ষ শধু নাম দিয়ে সার্চ করতে পারে এটি সাধারণ জনগণের জন্য নয়। শুধুমাত্র জন্ম তারিখ ও জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন।

এজন্য প্রথমে http://everify.bdris.gov.bd/  ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন। তারপর, সামনে নিচের মত একটি পেজ আসবে। উক্ত পেজে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি এর জন্য আপনাকে প্রথমে জন্মস্থান স্থায়ী না বর্তমান তা সিলেক্ট করে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করতে হবে।

image

তারপর আপনার সামনে নিচের মত পেজ আসবে ।এই পেজ আপনার এই পেজ আপনার সকল তথ্য পূরণ করে সাবমিট করলে আপনার নতুন জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আাবেদন কপি পেয়ে যাবেন।

image

অনলাইন থেকে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড

অনলাইন কপি ডাউনলোড।http://everify.bdris.gov.bd/ এই ওয়েবসাইটে যাবার পর আপনার সামনে নিচের মত পেজ আসবে।

image

এই পেজ আপনার ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন ও জন্ম তারিখ দিন। তারপর নিচের যোগ করে নিচের বক্সে এই স্থানের সংখ্যা যোগ করে সঠিক ফল বসান। তরপর নিচের সার্চ বাটনে ক্লিক  করলে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য দেখতে পারবেন। ও ওখান থেক ডাউনলোড করতে পাবেন। বিস্তারিত-

  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি (Jonmo Nibondhon Online Copy) যাচাই করার জন্য প্রথমে খালি বক্সে যার জন্ম নিবন্ধন তথ্য যাচাই করতে চান তার জন্ম নিবন্ধন সনদ 17 সংখ্যা জন্ম নিবন্ধন নম্বর প্রদান করুন ।
  • তারপর দ্বিতীয় বক্সে যার জন্ম নিবন্ধনের তথ্য যাচাই করতে চান তার জন্ম নিবন্ধন এর জন্ম তারিখ দিন ।
  • যদি জন্ম তারিখ পহেলা জানুয়ারি  1990 হয় তাহলে বক্স দিন  1990-01-01 লেখা উচিত।
  • যাচাই বাটনে ক্লিক করার পর, যার জন্ম নিবন্ধন আপনি যাচাই করতে চান জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি তথ্য পর্দায় প্রদর্শিত হবে।
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি প্রদর্শিত তথ্য সঠিক কিনা তা পরীক্ষা করুন যদি  ভেরিফাই বাটনে ক্লিক করার পর মেলানোর এ জন্মে রেকর্ড পাওয়া যায় না  লিখাটি উঠে আসে তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বর বা জন্ম তারিখ উল্লিখিত দুটি বক্সে দেওয়া হয়েছে এটি ভুল।

যদি আপনি উল্লেখিত নির্দেশনা সঠিকভাবে অনুসরণ করেন তাহলে আপনি সেই ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধন তথ্য পাবেন এবং যারা জন্ম নিবন্ধন আপনি প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী যাচাই করতে চেয়ে ছিলেন এটি সঠিক কিনা তা নিশ্চিত করতে স্ক্রিনে জন্ম নিবন্ধন তথ্য যাচাই করে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করুন।[adhere1]

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন

ধাপ:১  অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে এখানে ক্লিক করুন এবং ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন

ধাপ:২ আপনি কোন ঠিকানা অফিস থেকে জন্ম নিবন্ধন সনদ গ্রহণ করতে চান তা নির্বাচন করুন জন্ম নিবন্ধন সনদ জন্মস্থান স্থায়ী ঠিকানা বর্তমান ঠিকানা তিনটি অপশন থেকে একটি সংগ্রহ করা যাবে পরবর্তী ধাপে প্রদর্শিত পৃষ্ঠায় প্রদত্ত সমস্ত তথ্য সাবধানে পূরণ করবেন

কিভাবে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন করা যাবে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদনের নির্দেশনা নিচে দেওয়া হল:

ধাপ:৩ অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন পত্রটি প্রথমে বাংলা (ইউনিকোড) এবং তারপর ইংরেজিতে পূরণ করুন প্রয়োজন অনুযায়ী সম্পাদনা করুন এবং সংরক্ষণ বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ:৪ সে বাটনে ক্লিক করলে আবেদনপত্র সংশ্লিষ্ট রেজিস্ট্রারের কার্যালয় স্থানান্তরিত হবে আবেদনকারীর আর কোন সংশোধন করার সুযোগ থাকবে না ।

পরবর্তীতে আপনি যদি মুদ্রণ বোতামে ক্লিক করেন আপনি আবেদনপত্রের একটি মুদ্রিত অনুলিপি পাবেন।

ধাপ:৫ সার্টিফিকেটের জন্য আপনাকে 15 দিনের মধ্যে আবেদন পত্রে উল্লেখিত সার্টিফিকেশন সংগ্রহ করতে হবে এবং প্রযোজ্য হলে প্রয়োজনীয় সার্টিফিকেট সত্যায়িত কপি সহ রেজিস্ট্রার অফিসের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

এইচ এস সি বৃত্তির রেজাল্ট দেখুন 

বাংলাদেশ রেলওয়ে সার্কুলার দেখুন

জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম ডাউনলোড পিডিএফ

আপনি যদি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম(জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি) ডাউনলোড করতে চান  জন্ম নিবন্ধন অনলাইন  আবেদন করতে পারেন এই ক্ষেত্রে কিছু সুনির্দিষ্ট নিয়ম রয়েছে যা নিচে বিস্তারিত বর্ণনা করা হয়েছে।

1. জন্ম নিবন্ধন আবেদন পত্র ডাউনলোড করতে আপনাকে প্রথমে যে কোন ওয়েব ব্রাউজার এ যেতে হবে। ও http://bdris.gov.bd/ এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।

2. পরবর্তী ধাপ হলো: রেজিষ্ট্রেশন অফিস নির্বাচন করা। অফিস নির্বাচন করার জন্য আপনাকে আপনার জন্মস্থান, স্থায়ী ঠিকানা, বিভাগ জেলা ইত্যাদি ধাপগুলো অতিক্রম করতে হবে এবং ওয়ার্ড নির্বাচন করতে হবে।

3. পরবর্তী ওয়েবপেজে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম টি প্রথমে বাংলা (ইউনিকোড) তারপর ইংরেজিতে পূরণ করতে হবে ।

4. তারপর যদি আপনার কোন ধরনের সম্পাদনার প্রয়োজন হয় তাহলে আপনাকে এটি ভালোভাবে সম্পাদনা করতে হবে এবং সেভ বাটনে ক্লিক করতে হবে।

5. সেভ বাটনে ক্লিক করে আবেদনপত্র সংশ্লিষ্ট রেজিস্ট্রারের কার্যালয় স্থানান্তর করা হবে। ফলে আবেদনকারী আর কোন সংশোধনীর সুযোগ পাবে না ।

6. তারপর পরবর্তী ধাপে মুদ্রণ বাটন ক্লিক করে আপনি আবেদনপত্রের একটি মুদ্রিত অনুলিপি পাবেন। এটি মূলত জন্ম নিবন্ধনের আবেদন পত্র জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম পিডিএফ ফরমেটে ডাউনলোড করা যাবে ।

7. জন্ম নিবন্ধন শংসাপত্র পত্রের জন্য আবেদন পত্রে উল্লেখিত শংসাপত্র টি 15 দিনের মধ্যে সংগ্রহ করতে হবে সেইভাবে প্রযোজ্য হলে আপনাকে প্রয়োজনীয় সার্টিফিকেট সত্যায়িত কপি রেজিস্ট্রার অফিসের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

পরিশেষ

তাছাড়া অনেকেই আছেন যে জন্ম নিবন্ধন সনদের সেই কার্ডটি অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে কিনা তা যাচাই করতে চান। যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ কি অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করা হয়ে থাকে তাহলে আপনারা জন্ম নিবন্ধন এর নম্বর এবং জন্মতারিখ বসালেই আপনাদের জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি(Jonmo Nibondhon Online Copy)  সঠিক তথ্য পেয়ে যাবেন এবং তখনই বুঝতে পারবেন যে আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ অনলাইনে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। জন্ম নিবন্ধন সম্পর্কে যেকোনো প্রশ্ন আপনাদের যদি জানার থাকে তাহলে আমাদের কমেন্ট বক্সে তা লিখে দিন। আমরা আপনাদের সে সকল প্রশ্নের উত্তর দিতে সবসময় সদা প্রস্তুত রয়েছি।

Leave a Comment

Your email address will not be published.